বুড়িচংয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মহিলা সদস্যকে গালমন্দ ও লাঞ্চিতের অভিযোগ

বুড়িচংয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মহিলা সদস্যকে গালমন্দ ও লাঞ্চিতের অভিযোগ

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শাহা কামাল তার ইউপি’র মহিলা সদস্য ইসরত জাহানকে লাঞ্চিত, গালমন্দ ও টানা হেছড়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মহিলা সদস্য বুধবার বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকটে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে এ ঘটনার প্রতিবাদ ও সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে ওই ইউনিয়নের রামপুর গ্রাম সহ বিভিন্ন গ্রামের মেম্বার সাধারণ মানুষ উপজেলা পরিষদ এর চেয়ারম্যান আখলাক হায়দার নিকট এসে বিচার প্রার্থী হন সবাই। এসময় মহিলা সদস্য ইশরত জাহান পুরো ঘটনাটি উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট জানান।

লিখিত অভিযোগে এবং মহিলা সদস্য জানান জেলার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্য ইশরত জাহান তার সম্মানী ভাতা নিয়মিত পান না। তার সম্মানী ভাতার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শাহা কামালের নিকট প্রতিনিয়তই অাসেন কিন্তু তিনি এ বিষয়ে কোন কর্ন পাত করে না বলে তিনি জানান। গত ৮ ফেব্রুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদে আইন শৃংঙ্খলা, বিট পুলিশিং মিটিং শেষে ইউপি মহিলা সদস্য ইশরত জাহান চেয়ারম্যান মোঃ শাহা কামালের নিকট গিয়ে টেক্সের টাকা থেকে তার বেতন ভাতা প্রদান করার জন্য বলেন। এসময় চেয়ারম্যান মোঃ শাহা কামাল তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে অশোভন আচারন করেন। তখন মহিলা সদস্য ইশরত জাহান প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যান উত্তেজিত হয়ে মহিলা সদস্য কে টানা হেছড়া করে পরিষদের বাহিরে এনে ফেলে দেয়। এতে তিনি হাতে সহ শরীরের বিভিন্ন অংশে ব্যথা পান বলে জানান। এছাড়া মহিলা সদস্য ইশরত জাহান কে চেয়ারম্যান গালমন্দ করে এবং লাঞ্ছিত করে বলে অভিযোগ করেন। এঘটনায় ১০ ফেব্রুয়ারি বুধবার বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ সাবিনা ইয়াসমিন এর নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
লাঞ্ছিত ও গালমন্দ এবং টানা হেছড়ার বিষয় বৃহস্পতিবার বিকালে ওই ইউনিয়নের রামপুর গ্রাম সহ বিভিন্ন গ্রামের মেম্বার, সাধারণ মানুষ বুড়িচং উপজেলা চেয়ারম্যান অাখলাক হায়দারের নিকট এসে বিচার প্রার্থী হন। উপজেলা চেয়ারম্যান মহিলা সদস্য ইশরত জাহান সহ সকলকে সঠিক বিচারের শাস্বাস দেন এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ সাবিনা ইয়াসমিন এর নিকট পাঠান।
এবিষয়ে ভারেল্লা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শাহা কামাল বলেন মহিলা সদস্য ইশরত জাহান তিনি অামার নিকট এসে বিকট শব্দে অামাকে ধমক দিয়ে ট্যাক্সের টাকা থেকে বেতন ভাতা চান। নতুন ইউনিয়ন পরিষদ হওয়ায় এ ইউনিয়ন এর কোন ইনকাম নেই তাই তাকে কোথায় থেকে বেতন ভাতা প্রদান করব। গালমন্দ, টান হেচড়ার এবং লাঞ্ছিতের চেয়ারম্যান বলেন মহিলা সদস্য তিনি বিকট শব্দ করে অামার দরজার সামনে দাড়িয়ে পথরোধ করেন। তখন অামি ওনাকে পথ থেকে চলে যেতে বললে তিনি সড়ে যায়নি তাই তাকে সড়িয়ে আমি বাহিরে অাসি। আমি তাকে লাঞ্ছিত করে নি। আমাকে হেও লাঞ্ছিত অপমান করতে একটি কুচক্রী মহল তাকে দিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। মহিলা সদস্য ইতিপূর্বে ও আমার ক্ষতি করার জন্য বহু বার চেষ্টা চালিয়েছে।
এব্যপারে বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ সাবিনা ইয়াসমিন বলেন ভারেল্লা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ এর মহিলা সদস্য ইশরত জাহান ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ শাহা কামাল এর বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ আমার কার্যালয়ে জমা দিয়েছেন। বিষয়টি আমি তদন্ত করে দেখব।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY NewsTheme